Day 007 – প্রসঙ্গ: বাদুড়িয়ায় বাঁদরামি

অদ্ভুত সময় চলছে।

বাদুড়িয়ার ছেলেটা হঠাৎ করে ওই পোস্ট টা করলো কেন বুঝলাম না। একজন unknown entity এর করা পোস্ট viral কি করে হলো সেটাও বুঝলাম না। সাধারণ মানুষ; যেই ধর্মেরই হোক না কেন; দাঙ্গা করতে পারে না। কারণ অত ‘ধক’ নেই। তাই এটা conclude করতে খুব একটা অসুবিধে হয় না যে riot এর orchestration টা external element রা করেছে – যাদের প্রচুর hidden agenda আছে।

আমাদের IT industry তে একটা কথা আছে। Thought Leader – অর্থাৎ কিনা সেই সব লোক যারা কোনো বিষয় এতটাই পটু হয় যে তাদের মতামত final এবং binding ধরা হয়। পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসন appeasement politics এর thought leader – তাই তারা এই গোটা chaos টা সুন্দর ভাবে বাড়িয়ে দিলো। ঠিক যখন আমার মনে হয় যে আর ছড়াবেন না; উনি নিজেকে আরো উর্দ্ধে (?) নিয়ে যান। যোগ্য সঙ্গত করলো বিজেপি আর Adobe Systems Incorporated। পুরো ব্যাপারটা আরো খিচুড়ি পাকিয়ে গেলো; thanks to তপন বাবু & Owaisi সাহেব।
এর মাঝে INC আর CPIM নামক দুই বিলুপ্তপ্রায় প্রাণী limelight এ আসার প্রচুর চেষ্টা করেছে; আহারে – ওদের দেখলে মনটা একটু খারাপই হয়ে যায়। ঠিক যেন বাজে রেটিং পাওয়া performance improvement program এ থাকা ছেলে মেয়ে। জনগণ এর কাছে অনুরোধ পরের বার যেন atleast default rating দেয়া হয়ে এদের। জামানত বাজেয়াপ্ত হলে খুব খারাপ হবে। বিশেষত CPIM এ এখনো কিছু শিক্ষিত লোক জন আছে বলেই আমার জানা। তাই ওদের জন্য আমার কষ্ট টা বেশি হয়।

তবে এবার আমাদের বাংলার corrupted মিডিয়া কে আর গালি দেব না – এতদিন চক্ষু মুদিয়া থাকিয়া অবশেষে circulation এর ভয় উহারা নয়ন মেলিয়া চাহিয়াছেন। এবং more ওর less ঠিকঠাক রিপোর্টিং করিয়াছেন।
কিন্তু বাংলা মিডিয়া চোখ খুললেও; Delhi media (well, most of them) কিন্তু নিজের অবস্থানে পুরো দ্রাবিড় আন্নার মতন টিকে রয়েছে। অমরনাথ এর terrorism কে subtly justify করা, cow vigilante দের সাথে লস্কর এর জঙ্গি দের তুলনা করা etc etc – এবং প্রচুর গা ঘিনঘিন করা বেকার article দিয়ে পাতার পর পাতা ভরিয়ে ফেলেছে। এবং মোদির পদবি ঘোষ নয় বলে খুব হাপিত্যেশ করছে।

এই সমস্যা কতদিন চলবে জানা নেই। সমাধান কি সেটাও জানা নেই। কিন্তু একটা কাজ আমরা করতেই পারি – সেটা হল আমাদের সন্তান দের কে রং, ধর্ম দেখে বিভেদ করতে না সেখানো। বিভেদ যদি করতেই হয়ে; আর্জেন্টিনা আর ইস্ট বেঙ্গল এর supporter দের বিরুদ্ধে করুক। ban যদি কিছু করতে হয়; veg বিরিয়ানি ban করুক। কিন্তু ওরা যেন আমাদের এই প্রজন্মর মতন নোংরা না হয়।

এতো কিছু লিখতাম না – কিন্তু একটু আগেই যখন খবর এ দেখলাম যে Dhinchak Puja এর গানগুলো YouTube থেকে delete করে দিয়েছে; মনটা বড় খারাপ হয়ে গেলো। গান কে gun-down করার এই চক্রান্তের তীব্র প্রতিবাদ করছি।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s